প্রচ্ছদ

লাদাখে সংঘর্ষ: ২০ ভারতীয় সেনা নিহত, চীনে ৪৩ হতাহত

  |  ০৪:০৬, জুন ১৭, ২০২০
www.adarshabarta.com

আদর্শবার্তা ডেস্ক:

দীর্ঘ ৪৫ বছর পর ফের প্রতিবেশী দুই দেশ চীন ও ভারতের মধ্যে সীমান্ত সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ২০ জন ভারতীয় সৈন্য নিহত হয়েছে।ভারতীয় কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এ সংবাদ প্রকাশ করে বিবিসি বাংলা।

এদিকে সংবাদ সংস্থা এএনআই এর বরাত দিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় একই খবর প্রকাশ করে আনন্দবাজার পত্রিকা। প্রতিবেদনে বলা হয়- ভারতীয় সেনাকে উদ্ধৃত করে এএনআই জানিয়েছে, সোমবার রাতের সংঘর্ষে তিন ভারতীয় সেনা নয়, কমপক্ষে ২০ জন নিহত হয়েছেন।

সরকারি সূত্রকে উদ্ধৃত করে এএনআই আরও জানায়, চীনা বাহিনীর অন্তত ৪৩ জন নিহত অথবা গুরুতর আহত হয়েছেন।

সোমবার রাতে পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় দুই পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ১৪ ভারত-চীন সেনার সংঘর্ষের খবর প্রকাশ্যে আসে। প্রাথমিকভাবে সেনা সূত্রে জানা গিয়েছিল, সোমবার রাতের সংঘর্ষে, ভারতীয় সেনার ১ কর্নেলসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। সেনা এবং সরকারি সূত্রকে উদ্ধৃত করে, একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দাবি করে, সংঘর্ষে চীনের অন্তত পাঁচজন সেনা নিহত হয়েছেন।

ভারতীয় সেনা সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, সোমবার রাতের এ সংঘর্ষে আরও ১৭ জন গুরুতরভাবে জখম হয়েছিলেন। হিমাঙ্কের নীচে তাপমাত্রায়, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উঁচুতে আহত অবস্থায় দীর্ঘক্ষণ থাকার ফলে তাদের মৃত্যু হয়।

এ খবরে এখনও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত মাসের গোড়ার দিকে পূর্ব লাদাখের প্যাংগং লেকে দু দেশের সেনাদের মধ্যে হাতাহাতি ও পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটেছিল। এতে দু পক্ষের কমপক্ষে ১৩ সেনা আহত হওয়ার খবর দিয়েছিল আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো। তখন থেকেই পূর্ব লাদাখের চার স্থানে একেবারে মুখোমুখি অবস্থান করছে চীন ও ভারতের সেনারা।

এরপর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার লক্ষ্যে দু দেশের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠকও হয়েছে একাধিকবার। কিন্তু এসব বৈঠক যে কোনও কাজে আসেনি সোমাবারের ঘটনা তার প্রমাণ। শেষ অবদি এই সংঘাত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই দেখার বিষয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চীন-ভারত যুদ্ধের সম্ভবনাও উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না।