প্রচ্ছদ

ডেঙ্গু মোকাবিলায় ৭ দফা নির্দেশনা দিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  |  ০৯:৪৮, মে ১১, ২০২০
www.adarshabarta.com

আদর্শবার্তা ডেস্ক:

একদিকে দেশে যখন বাড়ছে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা তখন আশঙ্কা বাড়ছে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব নিয়েও। এমন অবস্থায় সারাদেশের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের ডেঙ্গু মোকাবিলায় সাত দফা নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

শনিবার (৯ মে) রাজধানীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ডেঙ্গু মোকাবিলার ব্যবস্থাপনা বিষয়ে এক ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। তে দেশের সকল জেলার সিভিল সার্জন ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তারা যুক্ত হয়েছিলেন।

রোববার (১০ মে) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক ও সিডিসি লাইন ডিরেক্টর ডা. শাহনীলা ফেরদৌসী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনা বিষয়ে যে সকল নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে তা জানানো হয়। নির্দেশনাগুলো হলো- যেহেতু করোনা ও ডেঙ্গু রোগী উভয়েরই জ্বর থাকতে পারে, ফলে করোনা পরীক্ষার পাশাপাশি সন্দেহভাজন রোগীকে ডেঙ্গুর পরীক্ষা করাতে হবে। জেলা হাসপাতাল এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেঙ্গু কর্নার গত বছর থেকেই চালু আছে, তাই এই বিষয়ে একটি টিম প্রস্তুত রাখতে হবে। জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি দেশের ৬৪ জেলায় ডেঙ্গু কিট বিতরণ করেছে। এরপরও কিটের প্রয়োজন থাকলে প্রোগ্রাম থেকে সাপ্লাই দেওয়া যেতে পারে বা নিজস্ব অর্থায়নে কেনা যেতে পারে। ডেঙ্গু বিষয়ে সচেতনতা তৈরির জন্য একটি ভিডিও পাঠানো হবে, যা নিজ উদ্যোগে স্থানীয় ডিশ চ্যানেল ও হাসপাতালসহ সম্ভাব্য জায়গাগুলোতে প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং পৌরসভাকে সঙ্গে নিয়ে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও ডেঙ্গু মশা নিধনে কাজ করতে হবে। প্রতিটি জেলা/উপজেলায় কোভিড-১৯ হটলাইন আছে, এই একই নম্বরকে ডেঙ্গু বিষয়ে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। ডেঙ্গু রোগীদের যাবতীয় তথ্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কন্ট্রোল রুমে পাঠাতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

এতে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ডা. আবু ইউসুফ ফকির, রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক ও সিডিসি লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. শাহনীলা ফেরদৌসীসহ অন্য লাইন ডিরেক্টররা।

কনফারেন্সে ডেঙ্গু বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এডিস মশাবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. আফসানা আলমগীর খান।